মার্কেট টিকার    

মহৌষধি কালিজিরা



কালিজিরাকে বলা হয় মহৌষধ। কালিজিরাকে খাবার না বলে পথ্য বলাই ভালো। যেমন ওজন কমাতে সহায়ক তেমন অন্যান্য রোগ বালাই দূর করতেও পারদর্শী।

জেনে নিন গুণে ভরা কালিজিরার কয়েকটি গুণের কথা-

* স্মৃতিশক্তি উন্নত করে। মনোযোগ বাড়ায়। যারা অস্থিরতায় ভোগেন, তাদের জন্য উপকারি কালিজিরা।

* রক্তে চিনির পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করে। যারা ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে চান, তাদের জন্য কালিজিরা অত্যন্ত কার্যকরী।

* রক্তে বাজে কোলেস্টরল কমিয়ে উচ্চ রক্তচাপ থেকে মুক্তি দেয়। এতে হৃদযন্ত্র ভালো থাকে।

* গেঁটে বাতের ব্যথা দূর করতে কার্যকর কালিজিরা।

* মাথাব্যথায় ভোগেন যারা তাদের জন্য উপকারি কালিজিরা।

* শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

* ব্রণ দূর করে।

* চুল পড়া রোধে দারুণ কার্যকর।

* দাঁত মজবুত করে।

* অ্যাজমা বা হাঁপানির সমস্যা উপশম করে।

* পাইলস, কোষ্ঠকাঠিন্য, জন্ডিস থেকে দ্রুত সারিয়ে তোলে কালিজিরা।

ওজন কমাতে কালিজিরা
কয়েকটি কালিজিরার দানা নিয়মিত খেলে মেদ ঝরতে শুরু করবে। কালিজিরায় আছে বিশেষ ধরনের ফাইবার বা আঁশ, যা অতিরিক্ত খাওয়া নিয়ন্ত্রণে রাখে। খাবারের মধ্যে একটু কালিজিরা মিশিয়ে নিলে স্বাদ যেমন বাড়ে, তেমনি পুষ্টিগুণও বেড়ে যায়।

লেবু পানিতে কালিজিরা
হালকা গরম পানিতে লেবুর রস মিশিয়ে খেয়ে ফেলুন। এবার হালকা গরম পানির সঙ্গে কয়েকটি কালিজিরার বীজ খেয়ে ফেলুন। শেষে এক চামচ মধু খান।

আরেকটি পদ্ধতি হচ্ছে হালকা গরম পানিতে লেবুর রস মিশিয়ে তাতে কালিজিরার গুঁড়া যোগ করা। তিন-চারটি দানা গুঁড়ো করে লেবু-পানিতে যুক্ত করতে হবে। কারণ, বেশি কালিজিরা যুক্ত করলে হজমে গোলমাল হতে পারে। এরপর ওই পানির মধ্যে এক চামচ মধু মিশিয়ে খেতে পারেন। এতে মেদ কমবে পেশি সুগঠিত হবে।

সতর্কতা
কালিজিরা কখনো পরিমাণে বেশি খাবেন না। এতে পিত্ত সমস্যা হতে পারে। সন্তানসম্ভবা নারীদের ক্ষেত্রেও কালিজিরা খাওয়ার ক্ষেত্রে সতর্ক থাকতে হবে। কারণ, কালিজিরা শরীর অতিরিক্ত গরম করে।




মুদ্রার হার

নামাজের সময়সূচি