মার্কেট টিকার    

দেশি সুতায় ভ্যাট প্রত্যাহার চায় বিটিএমএ



বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস অ্যাসোসিয়েশন (বিটিএমএ) অশঙ্কা করছে ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে দেশি সুতার ওপর পাঁচ শতাংশ মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) আরোপ করায় দেশের বস্ত্রখাত (কাপড় ও সুতা) আমদানি নির্ভর হয়ে পড়বে ।

সংগঠনটি বুধবার (১৯ জুন) রাজধানীর হোটেল সোনাগাঁওয়ে বিটিএমএ র বাজেট পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে এমন আশঙ্কা জানিয়ে দেশি সুতার ওপর পাঁচ শতাংশ ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে । সংবাদ সম্মেলনে সহ-সভাপতি মো. শামসুল আলামিনসহ অনান্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে বিটিএমএ সভাপতি মোহাম্মদ আলী খোকন বলেন, টেক্সটাইল সামগ্রীর তৈরির প্রধান কাঁচামাল সুতার উপর নতুনভাবে পাঁচ শতাংশ মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) আরোপ করা হয়েছে। এই ভ্যাট আরোপের ফলে বাংলাদেশের স্পিনিং মিলগুলো ধীরে ধীরে বন্ধ হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। এটি প্রত্যাহার করা না হলে বাংলাদেশ আবারও সুতা ও কাপড় আমদানি নির্ভর দেশে পরিণত হবে।

আরও জানান, চলতি বাজেটে সুতার ওপর পাঁচ শতাংশ ভ্যাট রাখার প্রস্তাব বাস্তবায়ন হলে প্রতি কেজি সুতার ওপর সর্বোচ্চ ২৪ টাকা ভ্যাট দিতে হবে। এমন পরিস্থিতিতে সুতার বর্ধিত মূল্য দিয়ে কোন ফেবরিক মিল বা তাঁতীরা স্থানীয় সুতা কিনতে আগ্রহী হবে না। বরং বাজারে বিভিন্ন পন্থায় শুল্ক ও কর মুক্তভাবে বিদেশি সুতা আনার পন্থা রয়েছে। ফলে তারা কম দামে বিদেশি সুতার কিনার প্রতি আগ্রহী হয়ে উঠবে। এতে করে দেশীয় শিল্প ক্ষতিগ্রস্থ হবে। তাই সুতার ওপর পাঁচ শতাংশ কর প্রত্যাহার করতে হবে।




মুদ্রার হার

নামাজের সময়সূচি