z

ব্যাংকগুলোর নগদ লভ্যাংশ বিতরণের স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক



পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংকগুলোর ঘোষণা করা নগদ লভ্যাংশ বিতরণের স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ২০১৯ সালের ঘোষিত লভ্যাংশ ব্যাংক কর্তৃপক্ষ চাইলে পুঁজিবাজারের সাধারণ বিনিয়োগকারীদের প্রাপ্য লভ্যাংশ ৩০ সেপ্টেম্বরের আগে বিতরণ করতে পারবে।

আজ রোববার (০৭ জুন) বাংলাদেশ ব্যাংকের ডিপার্টমেন্ট অব অফ-সাইট সুপারভিশন থেকে প্রকাশিত এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়।

পুঁজিবাজারের ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের স্বার্থে নগদ লভ্যাংশ বিতরণের সুযোগ দেয়ার বিষয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নরের কাছে দাবি করেন পুঁজিবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) নতুন চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম। এ প্রেক্ষিতে আজকে নগদ লভ্যাংশ বিতরণের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করলো ব্যাংকগুলোর এ নিয়ন্ত্রণ সংস্থা।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সার্কুলারে বলা হয়েছে, পুঁজিবাজারে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের অধিকতর স্বার্থ সংরক্ষণের উদ্দেশ্যে এ মর্মে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে যে, শুধুমাত্র ব্যক্তিশ্রেণির (স্থানীয় ও বিদেশি) বিনিয়োগকারীদের অনুকূলে বাংলাদেশ ব্যাংকের উপর্যুক্ত সার্কুলার এবং প্রচলিত অন্যান্য আইনের এ সংক্রান্ত বিধি-বিধান পরিপালন সাপেক্ষে ২০১৯ সনের জন্য ঘোষিত নগদ লভ্যাংশ ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০ তারিখের পূর্বে বিতরণ করা যাবে।

এর আগে চলতি বছরের ১১ মে চলমান করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে বাণিজ্যিক ব্যাংকে বার্ষিক লভ্যাংশ (ডিভিডেন্ট) ঘোষণার নতুন নীতিমালা জারি করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। মূলধন সংরক্ষণের ভিত্তিতে তিনটি ক্যাটাগরিতে সর্বোচ্চ ১৫ শতাংশ নগদসহ মোট ৩০ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা করতে পারবে ব্যাংকগুলো। তবে ২০১৯ সালের সমাপ্ত বছরের ঘোষিত লভ্যাংশ ৩০ সেপ্টেম্বরের আগে বিতরণ করা যাবে না।




মুদ্রার হার

নামাজের সময়সূচি